জীবননগর উথলীতে মোবাইলে ব্লু-ফিল্ম দেখিয়ে মাঠে ঘাস ও খড়িতে কুড়াতে যাওয়া দুই কন্যা শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ

 মো :  তারিকুর রহমান চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি ::চুয়াডাঙ্গার  জীবননগর উপজেলার উথলীতে মোবাইলে ব্লু-ফিল্ম দেখিয়ে মাঠে ঘাস ও খড়িতে কুড়াতে যাওয়া দুই কন্যা শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে একই এলাকার নাজমুল ইসলাম @ টংকারের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত টংকার উথলী বাজার পাড়ার ওদুর ছেলে এবং পেশায় একজন ইলেকট্রনিক সামগ্রী মেরামতকারী মিস্ত্রী। উথলী বাজারে তার দোকান রয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (২৫শে ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উথলী বাজার গোরস্থান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তবে অভিযুক্ত টংকার তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করেছে। 
এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী শিশুরা জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে উথলী বাজার ফুটবল মাঠ পাড়ার কতিপয় শিশু বাজার গোরস্থান মাঠে খড়ি কুড়াতে ও ঘাস কাটতে যায়। এ সময় মাঠে ছাগল দেখতে যায় একই এলাকার নাজমুল ইসলাম @ টংকার। সে ওই শিশুদের মোবাইলে ব্লু-ফিল্ম দেখায় এবং ধর্ষণ করার চেষ্টা চালায়। তার হাত থেকে রক্ষা পেতে এক শিশু ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়ে এবং জামা খুলে রেখে বাড়িতে চলে আসে। ওই শিশুদের প্রত্যেকের বয়স ৫-৬ বছরের মতো। 
ঘটনা জানাজানি হলে, শুক্রবার (২৬শে ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যার সময় স্থানীয়রা টংকারকে পাকড়াও করে আটকে রাখে। বিষয়টি মীমাংসার জন্য শুক্রবার রাতে সালিশ-বিচার করা হবে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী শিশুর মা জানান, টংকারের বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগ এর আগেও বেশ কয়েকবার উঠেছে। সে আমার বাচ্চা মেয়ের সাথে যে ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে আমি তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। সঠিক বিচারের অভাবে  প্রতিবারই সে ছাড় পেয়ে যায় এবং একই ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটায়। তবে এ ঘটনায় এখনো পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।
এ বিষয়ে ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিক জানান, অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগ এর আগেও পাওয়া গিয়েছে। তখন বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করা হয়। তবে এবারের ঘটনাটি খুব স্পর্শকাতর। ঘটনাটি শোনামাত্রই আমি ভুক্তভোগী শিশুর বাড়িতে উপস্থিত হয়। বিষয়টি ১নং ওয়ার্ডের মেম্বারকে জানানো হয়েছে। সন্ধ্যার পর স্থানীয়রা এ বিষয়ে আলোচনায় বসবেন।

Share On
No Content Available