সাত ধনী দেশের নাগরিকেরা ৪৫ শতাংশ টিকা পেয়েছে


করোনাভাইরাসের টিকার প্রয়োগ শুরু হয়েছে গত ডিসেম্বরে। এই টিকার প্রয়োগ শুরুর পর বিশ্বের ১০৭টি দেশে ২০ কোটি ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। আজ শনিবার বিকেল ৪টা পর্যন্ত বার্তা সংস্থা এএফপির পরিসংখ্যান থেকে এই তথ্য জানা গেছে।

তবে এই টিকার যে সমহারে বণ্টন হচ্ছে না, তার একটি চিত্র উঠে এসেছে এএফপির পরিসংখ্যানে। এএফপির খবরে বলা হয়েছে, এই পরিসংখ্যান অনুসারে, এই ২০ কোটি ডোজের ৪৫ শতাংশই পেয়েছেন বিশ্বের ধনী ৭ দেশের জোট জি-৭-এর নাগরিকেরা। যদিও এই দেশগুলোর মোট জনসংখ্যা বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ১০ শতাংশ।
এই পরিস্থিতিতে টিকার সমবণ্টন নিশ্চিত করতে গতকাল শুক্রবার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে জি-৭-এর দেশগুলো।

টিকার সমবণ্টন নিশ্চিত করতে সবার আগে এগিয়েছে এসেছে যুক্তরাজ্য। এ জন্য জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যদেশগুলোর মধ্যে একটি খসড়া প্রস্তাব বিতরণ করেছে যুক্তরাজ্য। গরিব দেশগুলোর মধ্যে টিকার ডোজ বিতরণের আহ্বান জানানো হয়েছে এই খসড়া প্রস্তাবের মাধ্যমে।

যুক্তরাজ্য গত বৃহস্পতিবার এই প্রস্তাবটি নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য ১৪ দেশের কাছে পাঠিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, বন্ধুত্ব, সংহতি, ন্যায্যতা বজায় রাখার জন্য দরিদ্র ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোকে টিকা দেওয়া প্রয়োজন। বুধবার নিরাপত্তা পরিষদে একটি বৈঠকে এই প্রস্তাব উত্থাপন করেন যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডোমিনিক রাব। তিনি বলেন, বিশ্বজুড়ে প্রায় ১৬ কোটি মানুষ সহিংসতাপ্রবণ বা অস্থিতিশীল এলাকায় বসবাস করেন। এসব এলাকার জনসাধারণের টিকা পাওয়া কঠিন হয়ে পড়বে।

Share your love