শিবপুরে বিয়ে করতে না পেরে বাড়ি ঘরে হামলা ও ভাংচুর


নরসিংদী প্রতিবেদক : নরসিংদীর শিবপুরে বিয়ে করতে না পেরে বাড়ি ঘরে হামলা ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। উপজেলার চক্রধা ইউনিয়নের বাড়ৈগাও টেকপাড়া গ্রামের বিধবা নাসরিন আক্তার পরিনার বাড়ীতে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে। 
নাসরিনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমার স্বামী সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যাওয়ার পর ছোট মেয়েকে নিয়ে সেলাই কাজ করে অতি কষ্টে সংসার চালাই। মেয়েকে বিয়ের প্রস্তাব দেয় একই গ্রামের মৌলবীবাড়ীর হাসিম উদ্দিনের ছেলে আক্তার হোসেন (৩০)। সে বিদেশ থেকে ফিরে এসে আমার মেয়েকে বিভিন্ন ভাবে উত্যক্ত করত। তার যন্ত্রনায় অতিষ্ট হয়ে মেয়ের লেখা পড়া বন্ধ করে মনোহরদীতে বিয়ে দিয়েছিলাম। 
তারপরও সে খান্ত হয়নি। সেখানে গিয়ে মেয়ের জামাইকে এডিট করা আজেবাজে ছবি দেখালে তার সংসার ভেঙ্গে গেছে। তাঁর ৬ মাসের শিশু সন্তান রয়েছে। আক্তার এ পর্ষন্ত চার বার বিয়ে করেছে। 
তারপরও আমার মেয়েকে রাস্তা ঘাটে বাড়ীতে এসে বিরক্ত করছে । তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ আমি। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি রাত আনুমানিক ৯টায় আক্তার ও তার সাংঙ্গ-পাঙ্গরা বসত বাড়ীতে হামলা করে ভাংচুর করেছে। 
এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে জানালে তিনি তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে অপারগতা প্রকাশ করেছেন। ২ বছর পূর্বে শিবপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেছিলাম।এলাকায় বিচার না পেয়ে অসহায় পরিনা আদালতের আশ্রয় নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।
বিষয়টি স্হানীয় সাংবাদিকদের অবিহিত করা হলে অভিযুক্তকে জিজ্ঞাস করলে, এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আক্তার হোসেন জানান, ওই মহিলার নিকট আমারা টাকা পাই। আর সেই টাকা না দেওয়ার জন্য আমার বিরুদ্ধে  মিথ্যা অভিযোগ করছে।

Share your love