খেতাব শহীদ জিয়াকে আলোকিত করে নাই, জিয়াউর রহমান নিজেই এই খেতাবকে আলোকিত করেছেন – হাবিব উন নবী খান সোহেল।

শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান শুধুমাত্র স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়ে এই জাতিকে যুদ্ধে নামান নাই। সেই সময়ে পাকিস্তানি বাহিনী ছিলো বিশ্বের চৌকস সেনাবাহিনী গুলোর মধ্যে একটি। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ব্যাংকারে, মাঠে-ময়দানে হানাদার বাহিনীর অস্ত্রের সামনে বুক পেতে দিয়ে লড়াই করেছেন নিজের স্ত্রী ও সন্তানদের তাদের গ্যান পয়েন্টে রেখে। সে মানুষকে ছোট করছেন শাহজাহান। এই শাহজাহান হচ্ছে বাংলাদেশের পরিবহন সেক্টরের এক নাম্বার মাফিয়া এক নাম্বার চাঁদাবাজ। বাংলাদেশের সড়ক পথে রঙ্গিন পানি খেয়ে কিছু ড্রাইভার গাড়ি চালিয়ে মানুষ হত্যা করে ছাত্রছাত্রীদের হত্যা করে সেই ড্রাইভারদের গুরু হচ্ছে এই শাহজাহান ওরফে বোতল শাহজাহান। এই শাহজাহানের আরেকটি উপাধি আছে কিছুদিন আগে বায়তুল মোকাররমের মুসল্লিরা পায়ের জুতা খুলে তাকে ছুড়ে মেরেছিলেন এরপর থেকে তার নাম জুতা শাহজাহান। ওদেরই আরেক হাইব্রিড এমপি বলে এই শাহজাহান ডাকাত শাহজাহান। এই শাহজাহান আর আরেকজন আ ক ম মোজাম্মেল মানে আকাইম্মা মোজাম্মেল। গাজীপুরে গেলে ওখানকার জেলা পরিষদের বাঙ্গলো আছে আরো অনেক ভবন সাক্ষী দিবে উনি গাজীপুরের প্লে-বয় মিনিষ্টার আকাইম্মা মোজাম্মেল। এই শাহজাহান ও মোজাম্মেল মিলে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের খেতাব কেড়ে নিয়েছেন। আরে ভাই খেতাবের চেয়ে অনেক বড় আমাদের নেতা জিয়াউর রহমান। খেতাব শহীদ জিয়াকে আলোকিত করে নাই জিয়াউর রহমান নিজেই এই খেতাবকে আলোকিত করেছেন। স্পষ্ট ভাষায় বলে দিতে চাই যে হাত আমাদের নেতার দিকে যাবে, তাকে অপমান করার চেষ্টা করবে সে হাত আমরা জ্বালিয়ে পুড়িয়ে দিবো। আমুকা খামুকা না জামুকা জানি না এর কাজ কি? যদি এর কাজ হয় রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধাদের ছোট করা অপমান করা তাহলে এই বাংলাদেশের জনগণ আগামীতে এই জামুকা দিয়ে পাদুকা বানাবে।

Share your love