আপন চাচার হাতে মিথ্যাচুরির অপবাদে নিযার্তনের স্বীকার নাবালক মঈনুল(১২)।

মোঃ তারিকুর রহমান চুয়াডাংগা ঃচুয়াডাঙ্গা জেলায় জীবননগর থানায় রাজনগর গ্রামে সম্পত্তি আত্মসাতের উদ্দেশ্যে মিথ্যাচুরির অপবাদ দিয়ে এক নাবালকে মর্ধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করেছে আপন চাচা।নির্যাতনের স্বিকার মোঃ মঈনুল (১২) জীবননগর উপজেলার রাজনগর গ্রামের মৃত বাবুলের ছেলে। নির্যাতনকারী একই গ্রামের বিল্লাল (৩০) মৃত আলাউদ্দিনের ছেলে।বিল্লাল সম্পর্কে মঈনুলের চাচা।
এলাকাবাসি অভিযোগ, ছোট বেলায় মঈনুলের বাবা মারা যায়।এরপর থেকে মঈনুলের বাবার সম্পত্তির উপর নজর পড়ে তার চাচা বিল্লালের।বিল্লাল বিভিন্ন সময় মঈনুলের উপর বিনাকারনে মারধর করত।যাতে মঈনুল এলাকা ছেড়ে চলে যায় এবং বিল্লাল খুব সহজে তার সম্পত্তি দখল করতে পারে তারই ধারাবাহিকতায় আজ মঙ্গলবার বিকালে বিল্লাল মিথ্যা চুরি অপবাদ দিয়ে মঈনুলকে বেধড়ক মারধর করে।
নাম প্রকাশ না করা শর্তে একজন বলেন, মঈনুলের দাদা আর্মি পারসন ছিল,এছাড়াও তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন।তার মৃত্যুর পর মুক্তিযোদ্ধা ভাতা ও সেনাবাহিনীর অবসর ভাতা থেকে মঈনুলকে বঞ্চিত করতে তার চাচা বিল্লাল উঠে পড়ে লাগে।এনিয়ে আগেও বিল্লাল মঈনুলকে মারধর করত।
এলাকাবাসি বলেন, মঈনুল এতিম হওয়ায় এলাকার লোকজন তাকে খুব স্নেহ করত।মঈনুল যে চুরি করতে পারে একথা মানতে নারাজ  এলাকাবাসি। এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচারের দাবি জানায় এলাকাবাসি।
এবিষয়ে জীবননগর থানায় যোগাযোগ করা হলে এসআই সিরাজ বলেন , মইনুলের মা থানায় একটি মামলা করেছেন।আমরা খুব দ্রুত অপরাধীকে আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করব।

Share your love