করোনা ঝুঁকি নিয়ে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে টাঙ্গাইল পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি কর্মীরা।


টাঙ্গাইল প্রতিনিধি সাগর আহমেদঃ   বাড়ি, অফিস, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, কল-কারখানায় বিদ্যুৎ নেই, একটা কল দিলেই চলে আসে পল্লী বিদ্যুৎ কর্মীরা। মাথার ওপর করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি, তবুও ভয় কে জয় করে ওরা দিন-রাত কাজ করে চলেছে মানুষের সেবায়। ঘরে ঘরে আলো বিলায় নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়েই।
সারা দেশে করোনা যখন একর পর এক মৃত্যুর ছোঁবল মারছে, তখন মৃত্যুর কথা না ভেবে  টাঙ্গাইল পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মীরা জীবন বাজি রেখে কাজ করেই চলছে। সুত্র জানায় জরুরী বিদ্যুৎ ব্যবস্থা চালু রাখতেই সারা দেশের ন্যায় টাঙ্গাইল পল্লী বিদ্যুতের সীমিতর  সদর দপ্তর ও  জোনাল অফিস ও অভিযোগ কেন্দ সারা দিন খোলা থাকছে। বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের ঝামেলা না থাকলেও নিয়মিতই রয়েছে ঘরে ঘরে বিদ্যুত পৌছানোর নানা রকম সমস্যা। এ সমস্যা মোকাবেলায় মাঠে রয়েছেন বিদ্যুতের কর্মীরা ও  লাইনম্যান  ।

ওদের একজন জহিরুল ইসলাম  তার বাড়ী ময়মনসিংহ জেলায় তিনি জানান চাকরী’র দায়িত্বের চেয়েও বেশী দায়িত্ব হলো এ সংকটময় মুহুর্তে মানুষের বাড়ীতে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা নিশ্চিত রাখা। পরিবার নিয়ে চিন্তা হয় না এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন পরিবারের চিন্তা তো সব সময়ই মাথায় আছে তবুও কাজ করে চলি সবার ঘরে আলো নিশ্চিত করতে। দুপুরের চড়া রোদে বিদ্যুতের খুঁটিতে উঠে কাজ করছিলেন সজিব মিয়া, নীচে নামতেই বললেন ‘সারাক্ষণ বৃদ্ধ মা-বাবা আর সন্তানের কথা মনে পড়ে, জানিনা তারা কেমন আছেন তবুও কাজ করে যাই, কারন মায়া’র চেয়ে দায়িত্বটা অনেক বেশী। একই কথা জানালেন অনেকেই। অফিসের সবাই কাজ করছেন আমাদের সবার লক্ষ্য সেচ ও সংকটময় এ সময় সবার ঘরে আলো পৌছানো। তিনি দেশের এই সংকটময় সময়ে বাড়ির বাহিরে না যেয়ে ঘরে থাকার আহবান সহ দোয়া চেয়েছেন এলাকাবাসীর কাছে।

Share your love