নামাজ আদায় নিয়ে সংঘর্ষ। নিহত ১

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মসজিদে নামাজ আদায় করা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংর্ঘষ হয়েছে। এতে সুজন শেখ (২২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ সময় প্রতিপক্ষের আঘাতে নিহতের বাবা মুজবর শেখসহ দুজন আহত হয়েছেন। আহতদেরকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার সকালে মুকসুদপুর উপজেলার পশ্চিম বাহাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সহকারী পুলিশ সুপার (কাশিয়ানী-মুকসুদপুর সার্কেল) আনোয়ার হোসেন ভূঁঞা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, পশ্চিম বাহাড়া গ্রামে মুন্সী ও মাতুব্বর বংশের মধ্যে আগে থেকেই এলাকার আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ ছিল। রবিবার এশার নামাজের সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মসজিদে নামাজ আদায় করাকে কেন্দ্র করে মুন্সি বংশের মজিবর শেখ ও মাতুব্বর বংশের মতি মাতুব্বরের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এরই জের ধরে সোমবার সকাল ৭টায় দুই বংশের লোকজন দেশীয় অস্ত্র শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংর্ঘষে লিপ্ত হয়। এ সময় মজিবরের ছেলে সুজন শেখ প্রতিপক্ষের আঘাতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন। এ সময় নিহতের বাবা মজিবর শেখ ও তুষার শেখ আহত হন।

সহকারী পুলিশ সুপার বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনায় সবর সরদার নামে একজনকে পুলিশ আটক করেছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। দোষীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন।

Share your love