কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার হারবাং ইউনিয়ন বাসীর করোনার ঝুঁকি এড়াতে প্রশাসনের কাছে হারবাংয়ের সর্বস্থরের জনসাধারণের দাবী।

 খোলা চিঠি

বরাবর

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাচকরিয়া উপজেলা, কক্সবাজার।
বিষয়: হারবাং ইনানী রিসোর্ট এলাকা হতে কক্সবাজার জেলার স্বাগতম গেইটে পুলিশের লকডাউন ব্যারিকেড স্থানান্তরের আবেদন।
জনাব,যথাযথ সম্মান প্রদর্শন-পূর্বক জানাচ্ছি যে,হারবাং ইউনিয়ন হচ্ছে কক্সবাজার জেলার প্রবেশদ্বার। সঙ্গত কারনে কক্সবাজার লকডাউন করতে গেলে ব্যারিকেড আমাদের ইউনিয়নে দিতে হয়।এই ব্যারিকেড দেয়ার ফলে শত শত গাড়ি আমাদের ইউনিয়নে আটকা পড়ছে। যার ফলে, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ সহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা গাড়ির ড্রাইভার, হেল্পার ও গাড়ির অন্যান্য যাত্রীর অবাধ বিচরণস্থলে পরিণত হয়েছে এই এলাকা। ড্রাইভার, হেল্পার ও গাড়ির অন্যান্য যাত্রীরা এই এলাকার চায়ের দোকানে আড্ডা দেয়। এলাকায় বিশ্রাম নেয়। এখন তাদের কারনে এলাকার মানুষ ভীত শঙ্কিত ও করোনা সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকিতে।
কক্সবাজার লোহাগাড়া সীমান্ত এলাকায় (কক্সবাজারের স্বাগতম গেইটে) যদি লকডাউন  করে দেওয়া হতো, তাহলে হারবাং এর মানুষের মধ্যে করোনা ঝুঁকি কমে যেত। সীমান্ত গেট এলাকার মধ্যে কোন ধরনের জনবসতি নাই এবং লোকজন ও লোক সমাগম নাই।
এই অবস্থায়, লকডাউন ব্যারিকেড স্থানান্তর করার জন্য প্রশাসনের সদয় দৃষ্টি-আকর্ষণ করছি।

Share your love