মৌলভীবাজার কুলাউড়ায় পেঁয়াজে দোকানে ২ লক্ষ ১৪ হাজার টাকা জরিমানা।

মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি: কুলাউড়া উপজেলায় করোনাভাইরাসের প্রভাবে অতিরিক্ত মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি, মূল্য তালিকা না থাকায় অভিযান পরিচালনা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এই অভিযানে একাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে দুই লাখ ১৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলা অভিযানটি উপজেলার পৌর শহর,রবিরবাজার, ব্রাম্মণবাজার, ভাটেরা ও বরমচাল এলাকায় পরিচালনা করা হয়।এ সময় কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এটিএম ফরহাদ চৌধুরী এবং কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান ভাটেরা, বরমচাল এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এসময় অতিরিক্ত মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি করায় ভাটেরা ট্রেডার্সকে ৫০ হাজার টাকা এবং একই এলাকা ও বরমচাল এলাকার আরো ৬টি প্রতিষ্ঠানকে মোট ৮৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।অপরদিকে কুলাউড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজরাতুন নাঈম খানের নেতৃত্বে উপজেলার রবিরবাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এসময় অতিরিক্ত মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি ও মূল্য তালিকা না থাকায় মুহিত দেবকে ৫ হাজার, মাসুক মিয়াকে ৫ হাজার, জাহিদ মিয়াকে ৫ হাজার, হারুনুর রশীদকে ৫ হাজার, শমরেন্দ্রকে ৫ হাজার, জয়নাল মিয়াকে ৮ হাজার, আব্দুর নুরকে ৫ হাজার, বিমর দেবকে ১০ হাজার, কামাল মিয়াকে ৮ হাজার ও ফয়েজ উদ্দিনকে ৬ হাজারসহ মোট ৬৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।এদিকে কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এটিএম ফরহাদ চৌধুরীর নেতৃত্বে কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাদেক কাওসার দস্তগীর, কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান, ওসি (তদন্ত) সঞ্জয় চক্রর্বর্তীসহ পুলিশের অংশ গ্রহনে রাত ৮টা থেকে ১১ টা পর্যন্ত শহরের স্টেশন চৌমুহনী, উত্তরবাজার ও ব্রাম্মণবাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। অভিযানে স্টেশন চৌমুহনী এলাকায় পেঁয়াজ বেশি দামে বিক্রি করায় সিকান্দার স্টোরকে ২০ হাজার টাকা, উত্তর বাজার এলাকায় জসিম এন্ড ব্রাদার্সকে ৩০ হাজার টাকা, জলিল এন্ড ব্রাদার্সকে ৫ হাজার টাকা ও ব্রাম্মণবাজার এলাকায় রিংকু কানু স্টোরকে ১০ হাজার টাকাসহ মোট ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

Share your love