রোহিঙ্গাদের জন্মসনদ দেওয়ায় দুই ইউপি চেয়ারম্যান বরখাস্ত

কুড়িগ্রাম: কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার কুতুপালং শরনার্থী শিবির থেকে আগত রোহিঙ্গাদের জন্মসনদ দেওয়ার ঘটনায় কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার দুই ইইনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

বুধবার (২৪ জুলাই) নাগেশ্বরীর ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আল ইমরান এ দুই চেয়ারম্যান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।  

তিনি বলেন, গত ১৬ জুলাই এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, নাগেশ্বরী উপজেলার ৬নং সন্তোষপুর ইউপি চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী লাকু ও ১২নং নারায়নপুর ইউপি চেয়ারম্যান মজিবর রহমান জন্ম ও মৃত্যু সনদ নিবন্ধন বিধিমালা ২০১৮ এর বিধি ৯ ও ১০ ধারা প্রতিপালন না করে কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলাধীন কুতুপালং শরনার্থী শিবিরের রোহিঙ্গা শরনার্থীদের জন্মসনদ প্রদান করেন। 

জানা যায়, রোহিঙ্গা নারী ফাতেমা খাতুন (২৬), মীম খাতুন (২৫), আলেয়া খাতুন (২৬), নুড়িকা খাতুন (২৫) নাগেশ্বরী উপজেলার সন্তোষপুর ইউনিয়নের বল্লভপুর গ্রামের আনিছুর রহমানের স্ত্রী আরিফা খাতুনের আত্মীয় পরিচয়ে ওই দুই ইউনিয়নের জন্মসনদ নেন। 

পরে তারা চলতি বছরের গত ৩ এপ্রিল মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য কুড়িগ্রাম পাসপোর্ট অফিসে পাসপোর্ট করতে যান। এরপর তাদের সহযোগী আরিফা খাতুনসহ আটক হন তারা। 

নাগেশ্বরীর ভারপ্রাপ্ত ইউএনও আল ইমরান বাংলানিউজকে জানান, শিগগির এ বিষয়ে সন্তোষপুর ও নারায়নপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যদের নিয়ে পৃথক সভা করে সবার মতামতের ভিত্তিতে দুইজনকে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হবে।

Share On