বিনোদুনিয়া

‘লক্ষ্য যখন নিজেকে ছাড়িয়ে যাওয়া’

মাবরুর রশিদ বান্নাহ। সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় নাট্য পরিচালক। দিন দিন নিজেকে নিজেই ছাড়িয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু তার বিরুদ্ধে দর্শকদের অনেক দিনের অভিযোগ প্রায় একই অভিনেতা এবং একই ধরনার নাটক নিয়ে ব্যস্ত তিনি। কিন্তু এবার ঈদে সব সমালোচনা কে পিছনে ফেলে দিয়ে যাচ্ছেন একের পর এক ব্যাতিক্রমী নাটক।আর ভেসে যাচ্ছেন প্রশংসার জোয়ারে । কিছু তারকা কে এমন চরিত্রে অভিনয় করিয়েছেন যে চরিত্র গুলোতে তারা সচারাচর অভিনয় করেন না। তাদের নতুন রূপে পর্দায় আবির্ভাব করে তিনি দেখিয়ে দিয়েছেন তিনি অন্যদের মত একই ঘরনার বিত্তে বন্দী নন । এই ঈদে মুক্তি প্রাপ্ত তার নাটক গুলো তে অভিনয় করেছেনঃ মোশাররফ করিম, নুসরাত ইমরোজ তিশা, তাহসান খান, শাওন,মুশফিক আর ফারহান,ইরফান সাজ্জাদ,আখম হাসান, সাবিলা নূর। অভিজ্ঞ এবং তরুনদের নিয়ে কাজ করে তিনি দেখিয়ে দিয়েছেন বাংলা নাটক শুধু কয়েকজন তারকার মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। যেখানে কিছু পরিচালকের ৬-৭টি নাটক নাটক মুক্তি পেলে। একই অভিনেতা কে দিয়ে কাজ করিয়েছেন ৫-৬টি নাটকে। সেখানে মাবরুর রশিদ বান্নাহ ব্যাতিক্রম জনপ্রিয় / হিট জুটি বাদ দিয়ে তরুণদের নিয়ে কাজ করেছেন বেশীর ভাগ নাটকে। আর তার পরিচালনার প্রত্যেক নাটকে থাকছে একটি করে সামজিক বার্তা। যা সত্যি প্রশংসার দাবিদার । যেমন প্রটেকশন নাটকের মাধ্যমে সামজিক অবক্ষয় তুলে ধরেছেন তো আঙুলে আঙুল নাটকে ধর্ষনের মতো নিকৃষ্ট কাজের শাস্তি ফাঁসি হওয়া উচিত সেটিও তুলে ধরেছেন । লেডি কিলারের মাধ্যমে আমাদের সমাজের ইভটিজিং কি জঘন্য পর্যায়ে পোঁছে গেছে সেটিও তুলে ধরেছেন। আমাদের দিন রাত্রির মাধ্যমে তিনি দেখিয়েছেন সমাজে সৎ মধ্যবিত্ত লোকগুলো হাজারো সমস্যায় পড়লেও তাদের সততা বির্সজন দিবে না। লুজার মাধ্যমে দেখিয়েছেন প্রতিবন্ধীরা সমাজে কতটা অবহেলিত। আবার ডার্ক হিরোর মাধ্যমে সমাজে এসিড নিক্ষেপের মত জঘন্য দিক তুলে ধরেছেন। বাবা শর্ট ফিল্মের মাধ্যমে দেখিয়েছেন বাবাদের মহান আত্নত্যাগ। এবারের ঈদে সেরা নাটকের তালিকা তৈরি করলে মাবরুর রশিদ বান্নাহার নাটকগুলো সেরার তালিকায় উপরের দিকে থাকবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। এই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে সামনে আরও দারুণ কিছু উপহার দিবেন আমাদের সেই প্রত্যশায় রইল তার কাছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close