লকডাউনে হাফ কিলো মাদক পৌঁছে যায় রিয়ার বাড়িতে, চাঞ্চল্যকর দাবি

 নিজস্ব প্রতিবেদন : এপ্রিল মাসে লকডাউনের মধ্যেই রিয়া চক্রবর্তীর বাড়িতে পৌঁছে যায় হাফ কিলো গাঁজা। রিয়ার হয়ে সই করে সেই ক্যুরিয়র নিয়ে নেন অভিনেত্রীর ভাই সৌভিক চক্রবর্তী।  তাঁর সঙ্গে ছিলেন দীপেশ সাওয়ান্তও। সম্প্রতি ক্যুরিয়র সার্ভিসের এক কর্মীকে জিজ্ঞাসাবাদের করে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো। এনসিবির জিজ্ঞাসাবাদের সময় ওই যুবক দাবি করেন, এপ্রিল মাসে রিয়ার বাড়িতে ৫০০ গ্রাম বাড-এর বাক্স নিয়ে যান তিনি। সৌভিক চক্রবর্তী এবং দীপেশ সাওয়ান্তকে সনাক্তও করেন ওই ব্যাক্তি।

এদিকে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর জিজ্ঞাসাবাদের সময় বলিউডের ২৫ জনের নাম করেছেন রিয়া চক্রবর্তী। মাদক চক্রের সঙ্গে যোগ রয়েছে বলিউডের ওই তারকা, পরিচালক, প্রযোজকদের। এমন দাবি করেন রিয়া। শিগগিরই ওই ২৫ জনকে সমন পাঠানো হবে বলে খবর। যা নিয়ে দিল্লিতে ইতিমধ্যেই এনিসিবির দুই আধিকারিক বৈঠকে বসেছেন বলে খবর। তবে রিয়া চক্রবর্তী যে ২৫ জনের তালিকা দিয়েছেন, তার মধ্যে ১৫ জন এনিসিবির নজরে রয়েছেন ইতিমধ্যেই। পাওয়া যাচ্ছে এমন খবর। তবে ওই ১৫ জন বলিউডের প্রথম সারির নন, তাঁরা প্রত্যেকে বি টাউনের বি গ্রেডের অভিনেতা বলে জানা যাচ্ছে। যদিও ওই তালিকায় কাদের নাম রয়েছে, সে বিষয়ে এখনও কিছু জানা যায়নি। তবে ওই ১৫ জন মাদকের কারবার এবং পাচারের সঙ্গে যুক্ত বলে খবর।

আরও পড়ুন :  ফেঁসে যাচ্ছেন তিন নায়িকা

তবে রিয়া চক্রবর্তীর দেওয়া তালিকার পাশাপাশি মাদক চক্রের সঙ্গে যোগ থাকলে এবং মাদক সেবনের যদি কোনও অভিযোগ পাওয়া যায়, তাহলে কঙ্গনা রানাউতের বিরুদ্ধেও তদন্ত হবে। মহারাষ্ট্র সরকার এমনই নির্দেশ দিয়েছে মুম্বই পুলিসকে। যদিও কঙ্গনা দাবি করেছেন, তাঁর সঙ্গে মাদক চক্রের যোগ রয়েছে কি না,  সে বিষয়ে তদন্ত করুক মুম্বই পুলিস। এতে তাঁর কোনও আপত্তি নেই বলে স্পষ্ট জানিয়েছেন কঙ্গনা।

আরও পড়ুন : হাজতের ভেতর যেমন কাটল রিয়ার প্রথম রাত

 

Share On