হাটহাজারী নাজিরহাট-রাউজান সড়কের সংস্কার কাজে জনদুর্ভোগে পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ি ও রাঙ্গামাটি বাসী


মোঃ রফিকুল ইসলাম, হাটহাজারী প্রতিনিধিত:
হাটহাজারী- সড়কে ছোট ছোট অসংখ্য কালভার্ট রয়েছে।রাস্তা সম্প্রসারণের কাজে সব গুলো কালভার্ট একসাথে ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে, এবং সাময়িক যানবাহন চলাচলের জন্য কালভার্টের পাশে অস্থায়ী পার্শ্ব রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে।এখন শুষ্ক মৌসুম হওয়ায় এসব পার্শ্ব রাস্তা গুলো একেকটি ধুলোর রাজ্যে পরিনত হয়েছে।এসব ধুলো বাতাসের সাথে মিশে আশেপাশের কয়েকশো গজ পর্যন্ত ছড়িয়ে পরছে।
হাটহাজারী-নাজিরহাট সড়কের দুইপাশে অসংখ্য প্রাইমারী স্কুল, হাই স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা রয়েছে। এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন আসাযাওয়ার সময় নিদারুন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
শিক্ষার্থী ছাড়াও এলাকাবাসী, আশেপাশের দোকানদার, পথচারী, যানবাহনের যাত্রীদের দুর্ভোগের কথা অবর্ননীয়।
কোনো ব্যক্তি এই রাস্তায় নিয়মিত কিছুদিন চলাচল করলে তার ফুসফুসের রোগ অবধারিত।
অথচ মানুষকে এই অসহ্য দুর্ভোগ থেকে রেহাই দিতে লাখ টাকা বাজেটের দরকার নেই, দরকার নেই হাজার টাকা বাজেটেরও।শুধুমাত্র ওয়াসার একটা গাড়ি হলেই মিলবে এর সুরাহা।সকালে এবং দুপুরে দুইবার পানি ছিটিয়ে দিলেই পাওয়া যাবে ধুলোর রাজ্যের এই যন্ত্রণা থেকে মুক্তি।অথচ এই সামান্য কাজ টুকু করার মত যেন কেউ নেই।
উন্নয়ন করা হয় জনগণকে সুবিধা দেয়ার জন্য, অথচ আমাদের দেশে উন্নয়ন করা হয় জনগণকে দুর্ভোগ দেয়ার জন্য।এর একমাত্র কারণ হল, প্রত্যেকটা উন্নয়ন করা হয় অপরিকল্পিতভাবে।
এর উদাহরণ আমরা প্রতিনিয়ত দেখে আসছি।ফ্লাইওভার নির্মানের সময় চট্টগ্রামবাসীকে কি পরিমাণ দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছিল তা অবর্ননীয়

Share On