সকলকে নিজ ধর্ম সহ অন্য ধর্মের প্রতি আন্তরিক হতে হবে – শ ম রেজাউল করিম এমপি

বিকাশ হালদার, পিরোজপুর প্রতিনিধিঃ মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিম বলেছেন, সকল ধর্মেই
জীব, সমাজ বা অন্যের কল্যানের কথা উল্লেখ আছে। আমাদের সকলকে নিজ ধর্ম সহ অন্য ধর্মের প্রতি আন্তরিক হতে হবে। দুর্গা পূঁজা থেকে আমাদের শিক্ষা নেয়া দরকার। কারন দুর্গা পুঁজার মাহাত্ব হলো সকল অসুর শক্তিকে দমন করে শুভ শক্তিকে একত্রিত করা। তেমনি আমাদেরকে সমাজের সকল অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে এক হয়ে কাজ করতে হবে। হিন্দু-মুসলমান সবাই মিলে মিশে এদেশে বাস করতে হবে। মন্ত্রী সোমবার (১৯অক্টোবর) জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে আসন্ন দুর্গা পূঁজা
উপলক্ষে হিন্দুধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট পিরোজপুর জেলা শাখার আয়োজনে সনাতন ধর্মলম্বীদের সাথে পূঁজাপুরবর্তী এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। তিনি বলেন, প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন ধর্মীয় আন্তরিকতা পূর্ন মানুষ। প্রধান মন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ আজ উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় এগিয়ে চলছে। এ অগ্রগতিকে থামাতে ও প্রশ্নবিদ্ধ করতে কেহ কেহ চেষ্টা করছে। শেখ হাসিনা যতদিন আছে আওয়ামীলীগ যতদিন আছে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশকে আমাদের বাঁচিয়ে রাখতে হবে। সেখানে কাধে কাধ মিলিয়ে আমরা এগিয়ে যাব। লক্ষ্য রাখতে হবে কোন ভাবে ঐ একাত্তরের দূর্বৃত্ত জামাত এবং জামাতের পৃষ্ঠপোষক বিএনপি এরা যেন বাংলাদেশকে আবার নষ্ট করতে না পারে এটা মাথায় রাখতে হবে। সমাজে যারা সাম্প্রদায়িকতা ছড়ায়, অন্যের জমি দখল করে তাদের বিরুদ্ধে সবাইকে এক হওয়ার জন্য আহবান জানিয়েছেন মৎস ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম (এমপি)। পিরোজপুর থেকে সব ধরণের ইভটিজিং ও নারী নির্যাতন বন্ধ করা হবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, রাস্তাঘাটে নারীরা নিরাপদে চলাচল করবে। এতে কেউ বাধা হবে না। এছাড়া মাদকের ভয়াবহতা বেড়ে গেছে উল্লেখ করে পিরোজপুর- ১ আসনের এ সাংসদ আরও বলেন, তার নিজ দলের মধ্যে থাকা
অনেকেই মাদকের সাথে জড়িয়ে গেছে। তাই দলমত নির্বিশেষে যারাই মাদকের সাথে জড়িত তাদের সকলকেই আইনের আওতায় আনার জন্য প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান মন্ত্রী। কেন্দ্রীয় হিন্দু কল্যান ট্রাষ্টির সদস্য সুরঞ্জিত দত্ত লিটুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, পিরোজপুর জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান, জেলা আ’লীগ সহ সভাপতি শাহজাহান খান, মাস্টার বিমল মন্ডল, আক্তারজ্জামান ফুলু,জিয়াউল আহসান গাজী, মুনিরুজ্জামান নাসিম প্রমুখ। মন্ত্রী এ সময় জেলার ৫০টি মন্দিরে প্রধানমন্ত্রীর শারদ উপহার হিসেবে ২ লক্ষ ৫৮ হাজার টাকার অনুদান, হিন্দু কল্যান ট্রাষ্টের পক্ষ থেকে জেলার ৬০ টি মন্দিরে ৪ লক্ষ ৯০ হাজার টাকা এবং ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে প্রতিটি মন্দিরে ২ হাজার টাকা করে অনুদান প্রদান করেন।

Share On
No Content Available