নরসিংদী জেলা প্রেসক্লাব এর উদ্যোগে বার্ষিক বনভোজন অনুষ্ঠিত


পলাশ প্রতিনিধি [নরসিংদী] নরসিংদী জেলা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে আয়োজিত বার্ষিক বনভোজন ২০২০ সুবর্ণগ্রাম রিসোর্টে  সোমবার ৯ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিত হয়। উৎসব মুখর এই বনভোজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন নরসিংদী জেলা প্রশাসক জনাবা ফারহানা কাউনাইন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্হিত ছিলেন নরসিংদী জেলা এসপি প্রলয় কুমার জোয়ার্দার। এতে জেলার ৫টি উপজেলার দুই শতাদিক প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার সংবাদ কর্মীরা অংশ গ্রহন করে।
নরসিংদী জেলা প্রেসক্লাবের আয়োজক কমিটির নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন, জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি বাবু মাখন দাস, সাধারন সম্পাদক মোঃ মাজারুল পারভেজ মন্টি, সিনিয়ার সহ সভাপতি একে ফজলুল হক, সিনিয়র সাংবাদিক নিবারন রায়, সাবেক জেলা প্রেসক্লাব সভাপতি মোস্তফা কামাল, আশাদুল হক পলাশ সহ অনান্যরা। 
এসময় আরো পলাশ উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এস এম শফি, দৈনিক খোলা কাগজের জেলা প্রতিনিধি খন্দকার শাহিন, পলাশ উপজেলা প্রতিনিধি শাহ্ বোরহান মেহেদী, শিবপুর প্রেসক্লাব এর সদস্য আনোয়ার হোসেন স্বপন, মোমেন খাঁন, রায়পুরা উপজেলার দৈনিক খোলা কাগজ প্রতিনিধি সামসুল আলম লিটন, পলাশের দৈনিক দিনপ্রতিদিনের রিপোটার্র বিল্লাল হোসেন উপস্হিত ছিলেন।
বনভোজন স্পটে এসময় আরো সাক্ষাত মিলে রায়পুরা, শিবপুর, বেলাবো, মনোহরদী, মাদবধী উপজেলার নবীন প্রবীন মিলে শতাদিক  সংবাদকর্মী ও তাদের বন্ধুবান্ধদের সাথে। বনভোজনে জেলার অনেক ভিআইপি ও গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গও অংশ গ্রহন করেন।
মনে রাখার মতো একটি ছাঁয়া ঘেরা সবুজ শ্যামল একটি রিসোর্ট হচ্ছে আড়াইহাজার এর সুবর্ণগ্রাম। এখানে বিশাল এলেকাজুড়ে নয়নাভিরাম নানান ফুলের সমারোহে একটি দিন আনন্দঘন হয়ে কাটাতে বারবার মনে স্মৃতি হয়ে থাকবে। সকাল থেকে খানাপিনার অভাব ছিলোনা। শুরুটা ছিলো দইয়ের লাচ্ছি সরবত ও কফি। কিছুক্ষন পরে আবার বড়ই, গয়ামের মিক্স আচার পরিবেশন করা হয়।
সারাদিন ব্যাপি অনুষ্ঠানে দুপুরের খাবার ছিলো সুস্বাদু রেসিপির বিরায়নী, গোস্ত, ডাল ও সবজি। পরে নাচ গানে মুখরিত এক সাংকৃতিক ফাগুন বিকালে উপস্হিত সবাই ফুর্তিতে মেতে উঠে। এক কথায় নরসিংদী জেলা প্রেসক্লাব আয়োজিত বার্ষিক বনভোজন আজ সুবর্ণগ্রামে একটি ব্যাতিক্রম আবেগ ও আনন্দের গভীর আস্বাদে সবাইকে বসন্তের উচ্ছাসে মাতিয়ে তুলেছিলো ক্ষনিক। যা, বনভোজন স্মৃতি হয়ে দোলা দিয়ে যাবে দ্রোহের আকর্ষণে বহুদিন।

Share On