টাঙ্গাইলের লৌহজং নদী উদ্ধার কার্যক্রম শুরু

আশিকুর রহমান, টাঙ্গাইল সংবাদদাতা :
টাঙ্গাইলের লৌহজং নদী উদ্ধারে দ্বিতীয় দফায় উচ্ছেদ অভিযানে নেমেছে কর্তৃপক্ষ।
প্রায় তিন বছর উদ্ধার কার্যক্রম স্থগিত থাকার পর সরকারে নির্দেশনায় আবারও
নদী উদ্ধারে নামে প্রশাসন।

সোমবার দুপুরে জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলামের নেতৃত্বে সমন্বিতভাবে নদী
দখল করে গড়ে উঠা সাততলা বিশিষ্ট একটি ভবন উচ্ছেদের মধ্যে দিয়ে এ নদী
উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করা হয়। এসময় তিনি বলেন নদীর দুই পারে প্রথম
পর্যায়ে তিন কিলোমিটারের ২৬০টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে এবং
ধারাবাহিকভাবেে ৬৫কিলোমিটার নদীই অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে উদ্ধার করা
হবে।

উল্লেখ্য: টাঙ্গাইল সদর উপজেলার ঢালান শিবপুর থেকে মির্জাপুরের বংশাই নদী
পর্যন্ত প্রায় ৬৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এক সময়ে খরস্রোতা এই লৌহজং নদী। নদীটি
শহরের অংশেই বয়ে গেছে প্রায় ১০ কিলোমিটার। আর এই ১০ কিলোমিটার অংশের
দু’পাশে হাজার হাজার বাড়িঘর ও অবৈধ স্থাপনা গড়ে উঠায় বর্তমানে সরু নালায়
পরিনিতি লাভ করেছে। অথচ এক সময় এই নদী দিয়ে জাহাজ ও লঞ্চ  চলতো শহরের
আমঘাট পর্যন্ত। কলকাতা ও লন্ডনের সাথে নৌপথে বাণিজ্যিক যোগাযোগ রক্ষায়
লৌহজং নদীর ছিলো অপরিসীম ভূমিকা।

Share On