ফেনীর সৌদিয়া ব্রিকস্’র মালিক নুর নবী গ্রেপ্তার

ফেনী প্রতিনিধিঃ ফেনীর মোল্লার তাকিযায় অবস্থিত সৌদিযা ব্রিকস্’র মালিক নূর নূর নবীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে ফেনী সদরের মদিনা বাস স্টেশন এলাকা থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। ফেনী মডেল থানার এসআই শহীদ বিশ্বাসের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল তাকে আটক করে। মডেল থানার একটি মামলায় (নস্বর ৪৮ তারিখ ১৯/২/২০২০) তাকে গ্রেফতার করা হয।
পুলিশ জানায,সৌদিয়া ব্রিকসের মালিককে অগ্রিম মূল্য পরিশোধের পরও ইট না দেযার টাকা ফেরত চাওয়ার ঐ ব্রিক ফিল্ডের মালিক নুর নবী ও শ্রমিকদের হামলায় আহত হন মোঃ এজাহারুল হক খোন্দকার ও জাহিদুল আলম নামে দু’ব্যক্তি। গত রবিবার এ ঘটনা ঘটে। আহত ব্যক্তি এ ঘটনায ইটের ভাটার মালিক নুর নবীকে ১নম্বর আসামী করে ফেনী মডেল খানার একটি মামলা দায়ের করেন। ১৯ ফেব্রুয়ারি ৩২৩, ৩২৫, ৩০৭, ৩৭৯,৩৪২,৩৪ ধারায় প্যানেল কোর্ট ১৮৬০ মামলাটি রুজু করা হয।
পুলিশ জানায, ২০১৮ সালের ঁঅক্টোবরে ৫০ হাজারটি ইট ক্রযের জন্য সৌদিযা ব্রিকস’র মালিক নুর নবী ও আব্দুল আউয়ালকে মূল্য বাবদ অগ্রিম ৪ লক্ষ টাকা পরিশোধ করেন এজাহারুল হক খোন্দকার।

বিভিন্ন সমযে ক্রয়কৃত ইট চাইলে মালিক নানা তালবাহানা করতে খাকে। সর্ব শেষ গত রবিবার এজাহারুলের এক স্বজন ঐ ইটের জন্য ব্রিক ফিল্ডে গেলে মালিক নুর নবী কোন ইট দেয়া হবে না বলে তাকে জানিয়ে দেন। পরে খবর পেযে এজাহারুল ব্রিক ফিল্ড গিয়ে মালিকের কাছে ইটের মূল্য বাবদ অগ্রিম দেযা টাকা ফেরৎ চাইলে ফিল্ডর মালিক নুর নবী, আউয়াল ও তাদের লোকজন এজাহারুল ও জাহিদের উপর আকস্মিকভাবে হামলা চালায়। লোহার রডের আঘাতে তাদের মাথা ফেটে যায়। এ সময় নুর নবীর লোকজন আহতদের কাছ থেকে নগদ টাকা, মোবাইল ফোন সেট, হাতের দামি ঘড়ি ইত্যাদি মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনিযে নেয়। পরে স্থানীয় লোকজন আহত অবস্থায় দুজনকে উদ্ধার করে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করায়।
স্থানীয লোকজন জানান, সৌদিযা ব্রিকসের মালিক নুর নবী ও আউয়াল ইট দেযার কথা বলে এভাবে অনেকের কাছ থেকে অগ্রিম টাকা নিযে তাদের সাথে প্রতারণা করছে। ইট না পেযে অগ্রিম দেযা টাকা ফেরত চাইলে তারা পাওনাদারদের উপর হামলাসহ লাঞ্চিত অপদস্ত করে।
এদিকে সোমবার নুর নবীর গ্রেফতারের খবর ছড়িযে পড়লে ভুক্তভোগীরা আনন্দ উল্লাস করেন।

Share On