সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়কে সকাল থেকে গভীর রাত, সর্বদাই লেগে থাকে যানজট।

সকাল থেকে গভীর রাত, সর্বদাই লেগে থাকে যানজট। কখনো কখনো এক কিলোমিটারও ছাড়িয়ে যায় এই জট। দৃশ্যটি নগরীর সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়কের পশ্চিম পাঠানটুলার। বর্ষাকালে এই জায়গায় সবসময় পানি জমে থাকার ঘটনা পুরোনো।কিন্তু সম্প্রতি  ড্রেনেজ সংস্কার কাজ শুরু হবার পর থেকে সমস্যা আরো জটিল হতে শুরু করে।  ড্রেনেজ কাজ শুরু হওয়ার পর থেকে একদিকে যেমন রাস্থা সংকোচিত হয়েছে অন্যদিকে রাস্থার মাঝখানে বড় বড় গর্ত গুলো তে ময়লা নলকূপের পানি সর্বদাই জমে থাকে।  সম্প্রতি চলমান এস এস সি পরিক্ষা ও দাখিল পরিক্ষা শুরু হয়, উক্ত সমস্যার কারনে  পরিক্ষার্থী সহ অভিভাবকগন পরছেন বিপাকে..এম,এজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ,রাকিব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ, সিলেট ইন্টারন্যাশনাল  স্কুল এন্ড কলেজ, বর্ডার গার্ড পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ প্রাইভেট প্রতিষ্ঠান  গুলোতে সময় মতো যেতে পারছেন না সাধারণ মানুষ সহ শিক্ষার্থীরা, ড্রেনের সংস্কার কাজ সিলেট সিটি কর্পোরেশন করলেও রাস্তা সড়ক ও জনপথের। ড্রেনের সংস্কার কাজ শেষ হলেই তবে সড়কের সংস্কার শুরু করবে বলে জানাচ্ছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ। স্থানীয় ব্যবসায়ীরাও গর্তসৃষ্ট এই যানজটের ক্ষতির বাইরে নন। যানজটের কারণে কোম্পানী কিংবা সরবরাহকারী থেকে পণ্য ডেলিভারী পেতে যেমন বিলম্ব হচ্ছে, তেমনি সংস্কার কাজ থেকে সৃষ্ট ধুলোবালিতে নষ্ট হচ্ছে মূল্যবান পণ্যসামগ্রী।সড়কের গর্তে জমে থাকা নোংরা পানি যাত্রীদের পবিত্রতা নষ্টের কারণ হচ্ছে বলেও দাবী করছেন অনেকে। বিশেষ করে মসজিদগামী মুসল্লীদের উপর যখন তখন ছিটকে পড়া নোংরা পানি অপবিত্র করে দিচ্ছে পোষাক। এতে মুসল্লীরা চরমভাবে বিরক্তিবোধ করছেন।যতো দ্রুত সম্ভব ড্রেন ও সড়কের সংস্কার কাজ শেষ করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের যথাযথ পদক্ষেপ দেখতে চান সাধারণ মানুষ। 

Share On