জাতীয়ঢাকাবাংলাদেশ

মায়ের দেখা পেল না অবুঝ শিশুটি।

মায়ের খোঁজে ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গের সামনে মামা বেলালের কোলের পাঁচ বছরের শিশু বিবি মরিয়ম সানিন।

পুরান ঢাকার চকবাজারে গত বুধবার রাতে অগ্নিকাণ্ডের পর থেকে সানিনের মা বিবি হালিমা বেগম শিলা নিখোঁজ রয়েছেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বিবি হালিমা শিলার লাশ খুঁজে পেতে তাঁর মেয়ে সানিনের ডিএনএর নমুনা নিয়েছেন চিকিৎসকরা। আজ শুক্রবার দুপুর ১টার দিকে বাবার সঙ্গে মায়ের খোঁজে ঢাকা মেডিকেলের মর্গে আসে ছোট্ট বিবি মরিয়ম সানিন। পাঁচ বছরের শিশুটি ঠিক বুঝে উঠতে পারছে না, কী হয়েছে! সবাই বলছে, তার মা আর নেই। কিন্তু সে জানে—মা তো একটু বাড়ির নিচে গিয়েছিল। তারপর কোথায় গেল?

সানিনের পাঁচ মাস বয়সী ছোট্ট বোন বিবি ফাতেমা সারাক্ষণ কাঁদছে।ও তার মাকে খুঁজছে। হালিমার স্বামী জহিরুল হক সুমন কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডের স্থান থেকে ২০০ গজ দূরেই আমাদের বাসা। চকবাজারেই আমার দোকান রয়েছে। ঘটনার দিন (২০ ফেব্রুয়ারি) রাতে আমার বড় মেয়ে সানিন একটু অসুস্থ ছিল। তাই স্ত্রীকে বললাম, তুমি নিচে নেমে ওষুধের দোকানে যাও। আমি মসজিদে নামাজ পড়ে দুজন একসঙ্গে বাসায় উঠব। মোবাইলে কথা বলার পর সে (হালিমা) নিচে নেমে এসে ওষুধের দোকানে যায়। আমি দোকান থেকে বের হয়ে দেখি চকবাজারের মোড়ে ভয়াবহ আগুন। তাঁকে ফোন দেওয়ার চেষ্টা করছি, ফোনে কল যায়নি। ভয়াবহ আগুনের কারণে সামনেও যেতে পারছিলাম না। দৌড়ে বাসায় গেলাম। দেখি শুধু বাচ্চা দুটা বাসায়। আমার স্ত্রী বাসায় নেই। এরপর থেকে আর আমার স্ত্রীকে পাচ্ছি না।’ জহিরুল হক সুমনের বাড়ি নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার কেশারপাড়া এলাকায়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close