Uncategorized

নিজে ধর্ষণ করে পরে বন্ধুদের দিয়ে অসংখ্যবার ধর্ষণ, গ্রেফতার প্রেমিক।

প্রথমে নিজে ধর্ষণ করে, তারপর বন্ধুদের দিয়ে ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরী প্রেমিকাকে অসংখ্যবার ধর্ষণ করায় প্রেমিক মো. ইকবাল (২৪)। নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় সেচের গভীর নলকূপের একটি টিনসেড ঘরে ছয়দিন আটকে রেখে এভাবেই ওই কিশোরীর ওপর যৌন নির্যাতন চালায় তার প্রেমিক। এ ঘটনায় রোববার (২৩ জুন) ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার টাঙ্গুয়া গ্রাম থেকে ওই লম্পট প্রেমিক মো. ইকবালকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

র‌্যাব-১৪ এর উপ-পরিচালক কোম্পানি অধিনায়ক লে. কমান্ডার (বিএন) এম শোভন খান প্রেসক্লাবে প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, নেত্রকোনার কেন্দুয়া পৌরসভাধীন স্বল্প কমলপুর এলাকার বাসিন্দা সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে মো. ইকবাল ওই কিশোরীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ঈদের পরদিন
বাড়ি থেকে কৌশলে বের করে নেয়।

পরে উপজেলার স্বল্প কমলপুর থেকে সাহিতপুর যাওয়ার পথে পাকা রাস্তার পাশে সেচের গভীর নলকূপের টিনসেড ঘরে ছয়দিন আটকে রেখে সে ও তার বন্ধুরা মিলে পালাক্রমে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণকারীরা গত ১২ জুন গভীর রাতে মেয়েটিকে অজ্ঞান করে কেন্দুয়া-মদন সড়কের গোগবাজার জামতলা এলাকার ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়। পরে ওই কিশোরী ঘটনাটি খুলে বলে।

ওই র‌্যাব কর্মকর্তা আরো জানান, এ ব্যাপারে ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে কথিত প্রেমিক মো. ইকবালসহ তার বন্ধুদের বিরুদ্ধে কেন্দুয়া থানায় মামলা করেন। এরপর র‌্যাব পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের জন্য ছায়া তদন্ত শুরু করে ও গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে।

র‌্যাব মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে মূল আসামি ইকবালের অবস্থান শনাক্ত করার পর রোববার ভোররাতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে গৌরীপুরের টাঙ্গুয়া গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ইকবাল তার বন্ধুদের নিয়ে ওই কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close