জাতীয়

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো প্রতিমন্ত্রীর অবৈধ বাগানবাড়ি!

নিজস্ব প্রতিবেদক

অবৈধভাবে নদীর জায়গা দখল করে গড়ে ওঠায় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপুর বাগান বাড়ি গুঁড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)।

বুধবার (১৭ জুলাই) বিকেলে বুড়িগঙ্গা নদীর দোলেশ্বর এলাকায় অভিযান চালিয়ে নদীর ১০ একর জায়গা দখলমুক্ত করে সংস্থাটি। এছাড়া এদিন চায়না হারবার ও বসুন্ধরা গ্রুপের দখল করা বিশাল এলাকা দখলমুক্ত করা হয়।

গুঁড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে নদীর জায়গা দখল করে নির্মিত অসংখ্য স্থাপনা। ওইদিন সকালে বুড়িগঙ্গা নদীর দক্ষিণ পাড় কেরানীগঞ্জে এভাবেই উচ্ছেদ চালিয়ে নদীর জায়গা নদীকে ফিরিয়ে দেয় বিআইডব্লিউটিএ।

সংস্থাটি জানায়, উচ্ছেদ অভিযানে ৬২ লাখ টাকায় নিলাম করা পাথর রাতের আঁধারে সরিয়ে নেওয়ার অভিযোগে চায়না হারবার নামে একটি কোম্পানির পন্টুন, ট্রাক ও এক্সক্যাভিটর জব্দ করা হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিএ’র এক কর্মকর্তা বলেন, মালামালগুলো আমরা চেষ্টা করেছি উদ্ধার করার জন্য। যখন আমরা ব্যর্থ হলাম, তখন বিজ্ঞ হাকিম তাদের কয়েকটা স্থাপনা নিলামের আওতায় এনেছে।

এছাড়া দেশের নাম করা একটি আবাসন প্রতিষ্ঠান কর্তৃক দখল করা জমিও এ দিন দখলমুক্ত করা হয়।

এদিন বিকেলে কেরানীগঞ্জ পাড়ের দোলেশ্বর এলাকায় বুড়িগঙ্গার ১০ একর জায়গা ভরাট করে করে তৈরি এক প্রতিমন্ত্রীর বাগানবাড়িও গুঁড়িয়ে দেয় বিআইডব্লিউটিএ। সংস্থাটি জানায়, দখল ঠেকাতে কারো পরোয়া করছেন না তারা।

বিআইডব্লিউটিএ’র আরেক কর্মকর্তা বলেন, নদীর সামনে একটা বাগান বাড়ি দেখেছি যেটি নদীর ভেতরে চলে আসছে। বাড়ির যেটুকু অংশ নদীর পাড়ের জায়গা দখল করেছিলে ততটুকু আমরা ভেঙে দিয়েছি। বাগানটি একজন সংসদ সদস্যের ছিল।

পঁয়তাল্লিশ দিনের অভিযান শেষে এ পর্যন্ত প্রায় ছয় হাজার স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে বিআইডব্লিউটিএ।

দ্য ওয়ার্ল্ডবিডি/ঢাকা/এফওয়াই

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close